1. litonsaikat@gmail.com : neelsaikat :
  2. stsauto2@gmail.com : শেষ আলো : শেষ আলো
শিরোনাম :
 বেরোবি-র  উপাচার্য অধ্যাপক ড. নাজমুল আহসান কলিমুল্লাহর বিরুদ্ধে দুর্নীতির ৪৬ অভিযোগ সিলেটে যুক্তরাজ্য থেকে আসা ২৮ জন যাত্রীর শরীরে করোনা পজিটিভ বিশ্বকাপ সুপার লিগে শুরুতে জিতে ১০ পয়েন্ট পেলো বাংলাদেশ আলোচিত সাবেক এমপি আউয়াল ও তাঁর স্ত্রীর সম্পদ ক্রোকের নির্দেশ পূর্বপুরুষের দেশ কলকাতা এসে অভিনেত্রী বনিতা সান্ধু জানলেন, তিনি কোভিড আক্রান্ত নতুন ইতিহাসঃ জাতীয় প্রেসক্লাবের সভাপতি ফরিদা ইয়াসমিন, সম্পাদক ইলিয়াস খান ফাইজার ভ্যাকসিন গ্রহণের ১ সপ্তাহ পর নার্স করোনা পজিটিভ সরকার এইচএসসি পরীক্ষার ফল প্রকাশের জন্য শীঘ্রই অধ্যাদেশ জারি করবে বাংলাদেশ ১৪ দিনের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিন বাধ্যতামূলক করছে, যুক্তরাজ্য থেকে আসা যাত্রীদের প্যানডেমিক প্যাকেজে ট্রাম্পের সই

আরও জটিল ও শক্তিশালী হতে পারে করোনা

  • Update Time : Wednesday, December 23, 2020
  • 137 Time View

২৩ ডিসেম্বর, ২০২০(শেষআলো ডটকম): করোনা ভাইরাস নির্মুল হওয়ার আপাতত কোনও সম্ভাবনা নেই। বরং তা চেহারা বদলে আরও শক্তিশালী হওয়ার সম্ভাবনা আছে বলে সতর্ক করলো বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। বুধবার জেনিভায় সাংবাদিক সম্মেলন করেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান। তাঁর বক্তব্য, ইউরোপে করোনা সংকট আপাতত অনেকটা কাটলেও এখন তা ছড়িয়ে পড়ছে আফ্রিকা, দক্ষিণ অ্যামেরিকা এবং এশিয়ার বিভিন্ন দেশে। এই সমস্ত অঞ্চলে মহামারির প্রকোপ ক্রমশ বাড়ছে। শুধু তাই নয়, যে দেশ গুলি করোনা পরিস্থিতি ধীরে ধীরে কাটিয়ে উঠছে, সেখানে ফের নতুন শক্তি নিয়ে করোনা ফিরে আসতে পারে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

অক্টোবরফেস্ট উৎসব বাতিল হওয়ায় এ বছর খালি বেঞ্চ ও শূন্য তাঁবু দেখা যাবে৷ সাধারণত ষাট লাখেরও বেশি মানুষের সমাবেশ ঘটে৷ গত বছর ৪৫টি দেশের মানুষ উৎসব উপলক্ষ্যে মিউনিখে এসেছিলেন৷

বুধবার সাংবাদিক বৈঠকে দেশের মানুষকে আশ্বাস বার্তা দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প। তিনি জানিয়েছেন, অ্যামেরিকা করোনার প্রাথমিক ধাক্কা অনেকটাই কাটিয়ে উঠতে পেরেছে। তাঁর বক্তব্য, গত দুই সপ্তাহ যে ভয়াবহতা দেখেছে অ্যামেরিকা, ভবিষ্যতে তা আর দেখতে হবে না। শুধু তাই নয়, ট্রাম্পের বক্তব্য, আর কিছু দিনের মধ্যে অ্যামেরিকার পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়ে যাবে। করোনাকে বিদায় জানানো যাবে। কিন্তু বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার বক্তব্য, শীতে দ্বিগুণ শক্তি নিয়ে অ্যামেরিকায় ফিরে আসতে পারে করোনা। এখনই এই ভাইরাস বিদায় নেবে, এটা ভাবলে ভুল হবে। বস্তুত, চরিত্র বদলে যে ভাইরাস ফিরে আসছে, চীন তা এর মধ্যেই বলতে শুরু করেছে। বেশ কয়েকদিন সংক্রমণমুক্ত থাকার পরে চীনে ফের করোনার প্রকোপ শুরু হয়েছে। আক্রান্তের সংখ্যা কম হলেও, ভাইরাস যে ফিরে এসেছে, তা বিলক্ষণ বুঝতে পারছে চীন প্রশাসন। নতুন পরিস্থিতিতে প্রাথমিক ভাবে রোগীর শরীরে কোনও উপসর্গও দেখা যাচ্ছে না। ফুসফুসে তা অনেকটা সংক্রমিত হওয়ার পরে আচমকা অসুস্থ হয়ে পড়ছেন রোগী। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা জানাচ্ছে, নতুন চেহারায় করোনা ভাইরাস আরও জটিল এবং শক্তিশালী হয়ে উঠছে।

তবে বহু খারাপের মধ্যেও আশার আলো দেখা গিয়েছে। জার্মানি করোনার টিকা বা প্রতিষেধক তৈরিতে অনেকটাই অগ্রসর হয়েছে। পশুর শরীরে ভ্যাকসিনের পরীক্ষা সাফল্য পাওয়ার পরে এ বার মানব শরীরে তার পরীক্ষা হবে বলে জানানো হয়েছে। শুধু জার্মানি নয়, যুক্তরাজ্যের অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়েও ভ্যাকসিন তৈরির কাজ অনেকটা এগিয়ে গিয়েছে। আজ, বৃহস্পতিবার সেখানে ভ্যাকসিন মানব শরীরে প্রয়োগ করার কথা। সুইজারল্যান্ডেও বিজ্ঞানীরা এ বার তাঁদের তৈরি ভ্যাকসিন মানব শরীরে প্রয়োগ করবেন। বিশেষজ্ঞদের বক্তব্য, যদি সব ঠিক থাকে, তা হলে এ বছরের শেষের দিকে বাজারে করোনার টিকা ছেড়ে দেওয়া যাবে। তবে একই সঙ্গে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, সাফল্য এসে গিয়েছে বলে এখনই আনন্দ করার কারণ নেই। মানব শরীরে একাধিকবার টিকার পরীক্ষা হবে। একটি ক্ষেত্রে বিফল হলেই নতুন করে ভ্যাকসিনের পরীক্ষা শুরু করতে হবে। ফলে আপাতত ধৈর্ষ ধরে অপেক্ষা করা ছাড়া আর কোনও উপায় নেই।

এ দিকে এই পরিস্থিতির মধ্যেই অ্যামেরিকা সেখানকার ভ্যাকসিন বিশেষজ্ঞকে পদ থেকে রাতারাতি সরিয়ে দিয়েছে। অভিযোগ, করোনার চিকিৎসায় ট্রাম্পের সঙ্গে এক মত হতে পারেননি তিনি। ভারত থেকে ক্লোরোকুইন আমদানি করে অ্যামেরিকায় তা করোনার বিরুদ্ধে ব্যবহার করছেন ট্রাম্প। কিন্তু বায়ো মেডিক্যাল অ্যাডভান্সড রিসার্চ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট অথরিটির ডিরেক্টর রিক ব্রাইট এই চিকিৎসার বিরোধিতা করেছিলেন। তাঁর বক্তব্য ছিল, ক্লোরোকুইন যে করোনা প্রতিরোধে কাজ করছে, তার কোনও নির্দিষ্ট প্রমাণ নেই। অন্য দিকে এই ওষুধ শরীরে বিরূপ প্রতিক্রিয়াও ঘটাচ্ছে। এই অপরাধে রাতারাতি তাঁকে পদ থেকে সরিয়ে দিয়েছে মার্কিন প্রশাসন।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এবং জনস হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিসংখ্যান বলছে, বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত গোটা বিশ্বে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ২৬ লাখ ৩৭ হাজার ৮৮৮। মৃত্যু হয়েছে, এক লাখ ৮৪ হাজার ২৩৫ জনের। সুস্থ হয়েছেন সাত লাখ ১৭ হাজার। শুধু অ্যামেরিকাতেই আক্রান্ত সাড়ে আট লাখ। মৃত্যু হয়েছে ৪৭ হাজার ৫০০ জনের। ইটালিতে মৃত ২৫ হাজার। স্পেনে ২১ হাজার ৭০০। ফ্রান্সে ২১ হাজার ৩০০। তবে গত তিন দিনে সর্বত্রই মৃত্যুর হার আগের চেয়ে কমেছে।

(এপি, রয়টার্স)

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2020 sheshalo
Site Customized By NewsTech.Com